ফাইভ স্টার রেটিং এবং পজেটিভ রিভিও পাওয়ার সিক্রেটস!

আমরা যারা ফ্রিল্যান্সিং করি তারা সবাই রিভিও এবং রেটিং শব্দের সাথে খুব ভাল ভাবে পরিচিত। একজন প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার জন্য আপনার দক্ষতার পাশা পাশি আপনার প্রোফাইলে ভালমানের রিভিও প্রয়োজন। মূলত বেশি বেশি কাজ পাওয়ার জন্য আবার বায়ারের দৃষ্টি আর্কষনের জন্য পজেটিভ রিভিও খুব গুরুত্বপূর্ন। অনেকেই ভালমানের কাজ জানার পরও বায়ারের কাছ থেকে ভাল রিভিও নিতে ব্যর্থ হয় । আবার অনেকেই সাধারন মানের কাজ করেও বায়ারের কাছ থেকে পজেটিভ রিভিও নিতে সক্ষম হয়। আর এই পজেটিভ,নেগেটিভ রিভিও নিয়ে আজ আমরা আলোচনা করব।


দ্রুত কাজ পাওয়ার সিক্রেট টিকস জানতে নিচের পোস্টগুলো দেখুন। 

রিভিও কী?

সাধারণ অর্থে রিভিও বলতে কোন জিনিস বা সেবা  সম্পর্কে  ক্রেতা বিক্রেতার প্রতি তার সেবার গুনগত মান সম্পর্কে যে মতামত প্রদান করে তাকে রিভিও বা মূল্যায়ন বলে ।

ক্রেতা মূলত দুইটি মতামত দিয়ে থাকে একটি পজেটিভ এবং অপরটি নেগেটিভ । আর আমার সবাই জানি যে,পজেটিভ মতামত নিজের ব্যবসার জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ন যা ব্যবসার প্রসারে ভুমিকা রাখে। আপরদিকে নেগেটিভ মতামত ব্যবসার জন্য খারপ প্রভাব সৃষ্টি করে। একজন ব্যবসায়ির ক্ষেত্রে যেমন পজেটিভ মতামত গুরুত্বপূর্ন তেমন একজন প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সারেরও পজেটিভ মতামত গুরুত্বপূর্ন।

ফাইভ স্টার রেটিং কেন গুরুত্বপূর্ন?

আমার সাধারনত কোন কিছুর গুনাগুন প্রকাশ করার জন্য রেটিং সিস্টেমটি ব্যবহার করে থাকি। অনেকে দশ (১০) রেটিং ব্যবহার করে আবার অনেকে ফাইভ (৫)  রেটিং ব্যবহার করে । এই রেটিং এর মান বেশি হলে পজেটিভ আর কম হলে নেগেটিভ বুঝানো হয়।  ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেসগুলোতে ফাইভ স্টার রেটিং ব্যবহার করা হয়। আর এই ফাইভ স্টার রেটিং পেলেই পজিটিভ রেটিং অর্জন হয়। ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেসগুলোতে ফাইভ স্টার রেটিং কেন ‍গুরুত্বপূর্ন তা জানবো এখন..

১। কোন বায়ার যদি ফাইভ স্টার রেটিং দেয় এর অর্থ বায়ার আপনার প্রতি খুশি তাহলে বায়ারের কাছ থেকে ভবিষ্যতে কাজ পাওয়ার সম্ভবনা থাকে।

২। সকল কাজ যদি ফাইভ স্টার রেটিং হয় তাহলে আপনার প্রোফাইল ভারি হয় বা আপনি যে দক্ষ তার প্রমান পাওয়া যায় ফলে খুব সহজে বায়ার আপনাকে কাজ দিতে আগ্রহী হয়।

৩। ফাইভ স্টার রেটিং এর জন্য খুব সহজে নতুন বায়ার আপনার প্রতি আস্থা অর্জন করে এবং বড় মানের কাজ পাওয়ার সম্ভবনা থাকে। 

৪। আপনার গিগ বা প্রোফাইল সহজেই র‌্যাংক করে বা বায়ারের সার্চে দেখায় এবং সহজেই কাজ পাওয়ার সম্ভবনা থাকে।

৫। সর্বোপরি আপনি যে আপনার পেশায় দক্ষ তার প্রতিফল মূলত ফাইভ স্টার রেটিং এবং পজেটিভ রিভিও।

ফাইভ স্টার রেটিং এবং পজেটিভ রিভিও পাওয়ার সিক্রেটস !

একজন প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই আগে শতভাগ কাজ শিখতে হবে।মোট কথা আপনাকে আপনার প্রোফেশনে দক্ষ হতে হবে। আপনি ভালো কাজ পারলে বায়ার আপনাকে আপনার কাজে খুশি হয়ে ফাইভ স্টার রেটিং দিতে বাধ্য। আর আপনি কাজ না জেনে যদি হাজার সিক্রেটস বা টিপস ফলো করেন তবুও ভালো রিভিও পাবেন না। এই টিপসগুলো তাদের জন্য যারা ভালো কাজ জেনেও বায়ারকে কাঙ্খিত কাজ দিয়েও ফাইভ স্টার রিভিও নিতে ব্যর্থ তাদের জন্য।

১। প্রথমে আপনাকে কোন বায়ার কাজের জন্য হায়ার করার পূর্বে মেসেজ করলে তার সাথে তার ব্যবসা সম্পর্কে বিষদ আলোচনা করুন। বায়ার কী চাই? কেন চাই? বায়ারের বিজনেস এর ভবিষ্যত  পরিকল্পনা সম্পর্কে জানুন। এতে করে বায়ার আপনাকে এক্টিভ আর দক্ষ মনে করবে যা একটি প্লাস পয়েন্ট।

২। আপনি কাজ শুরু করলে মাঝে মাঝে বায়ারকে কাজের অগ্রগতি সম্পর্কে অবগত করুন এতে করে বায়ার আপনার প্রতি কনফিডেন্ট পাবে যে,আপনি কাজ করছেন আরও বায়ারের চাহিদা সম্পর্কে আপনিও একটি ধারনা পাবেন।

৩। প্রয়োজনে বায়ারের কাজ কতো দিনের মধ্যে লাগবে তা অনুসারে একটু বেশি সময় চেয়ে নিন কিন্তু বায়ারকে তার কাজ সময় শেষ হওয়ার আগেই দেওয়ার চেষ্টা করুন। এতে করে বায়ার বুঝতে পারবে আপনি সময় সম্পর্কে সচেতন।

৪। বায়ারকে কাজ ডেলিভারি দেওয়ার আগে কাজের নমুনা দিয়ে বায়ারকে বলুন তিনি আপনার কাজে সন্তষ্ট কী না তার আরও কিছু প্রয়োজন কী না? আরও কোন রিভিশন লাগবে কী না?

৫। প্রয়োজেনের তুলনায় ২/১ টা কাজ বা কোন কাজের অংশ বেশি করে দিন ।

৬। যদি আপনার প্যাকেজে কাজের মূল ফাইল দেওয়ার কথা উল্লেখ না থাকে তবুও আপনি বায়ারকে সেটি ফ্রি দিয়ে দিন এবং বলুন যে,আপনি তাকে মূল ফাইল খুশি হয়ে দিয়েছেন।

৭। বায়ারের সাথে কথা বলার সময় ভদ্র ও মার্জিত ভাষা ব্যবহার করুন।

৮। বায়ারের সাথে কথা বলার সময় ইংরেজী যেন ভুল না হয় সেদিকে খেয়াল করুন। কারন বায়ার যদি তার মনের ভাব আপনাকে বোঝাতে ব্যর্থ হয় তাহলে ভাল কাজ করার পরও বায়ার আপনাকে কমিউনিকশনে রেটিং খারাপ দিতে পারে। বায়ারের কথা বুঝতে না পারলে প্রয়োজনে গুগল ট্রান্সলেটরের সাহায্য নিন অথবা আপনার পরিচিত কোন দক্ষ বড় ভাই বা ছোট ভাইয়ের সাহায্য নিন যারা ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে অভিজ্ঞ।  

৯।  বায়ারকে কাজ ডেলিভারি দেওয়ার সময় যে ডেসক্রিপশন লিখতে হয় সেখানে আপনি বায়ারের কাজের ভবিষ্যতে যে কোন পরির্বতন,পরিমার্জন ইত্যাদি বিভিন্ন সুবিধা উল্লেখ করুন এবং তাকে বলুন আপনি তাকে এই সেবাগুলো ভবিষ্যতে ফ্রি করে দিবেন। যেকোন সমস্যায় যেন আপনাকে নক করে আপনি তাকে সাহায্য করার জন্য সদা প্রস্তুত।

১০। সব শেষে বায়ারকে তার সুস্থতা আর র্দীয়ায়ু কামনা করে একটি মেসেজ দিন।

আশা করা যায় আপনি যদি কাজ হালকা খারাপও করেন তবুও উপরের সব বিষয়গুলো ফলো করলে খুব সহজেই বায়ারের কাছ থেকে ফাইভ স্টার রেটিং পাওয়ার সম্ভবনা থাকে সাথে বায়ার খুশি হয়ে আপনাকে টিপসও দিতে পারে। একটি ভালো প্রোফাইল মানে হলো একজন ভালো ফ্রিল্যান্সার আর একজন ভালো ফ্রিল্যান্সার মানে হলো একটি ভাল কাজের আস্থা। তাই সব সময় বায়ারকে সেরা কাজ দেওয়ার চেষ্টা করবেন এবং নিজের দক্ষতা ধরে রাখারও চেষ্টা করবেন। তাহলে ভালো রিভিও এর পাশাপাশি  প্রতিনিয়ত ভালো কাজও পাবেন। 

বেশি বেশি অর্ডার পেতে নিচের পোস্টগুলো দেখুন। 

পড়ার জন্য ধন্যবাদ। আর ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের পোস্ট টি সাথে শেয়ার করুন। 

Next Post Previous Post
1 Comments
  • Md. Arif Hosen
    Md. Arif Hosen 19 January 2021 at 19:42

    Very Helpful Content.

Add Comment
comment url